হ্যালো বন্ধুরা আমাদের দেশের প্রতিটা মানুষের হাতে এখন একটি করে স্মার্টফোন আছে কারো কারো হাতে আবার দুই তিনটা করেও থাকে। এবং এর মধ্যে বেশির ভাগ স্মার্টফোনের অপারেটিং সিস্টেম হচ্ছে এন্ড্রয়েড। এবং আমাদের এই অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমের নানা ধরনের অ্যাপ আছে ইন্টারটেনমেন্ট গেমস এবং নানা ধরনের অ্যাপস।
বাট কিছু অ্যাপস আছে যেগুলো আমাদের দৈনন্দিন জীবনে অনেক কাজে লাগে খুবই ইম্পরট্যান্ট এবং জরুরী কিছু অ্যাপ যেগুলো আমাদের অনেকের ফোনে থাকে না আবার অনেকে অ্যাপ গুলো সম্পর্কে জানেই না।
তো আজকে আমি এরকম পাঁচটি অ্যাপ এর কথা আপনাদের কে জানাব যে অ্যাপ গুলো অবশ্যই আপনার ফোনে থাকা উচিত। যদি আপনি বাংলাদেশী হয়ে থাকেন।
আমরা এই পাঁচটি অ্যাপ এর ফিচারগুলো নিয়ে আলোচনা করব এবং কোন অ্যাপএর কি কাজ এই পাঁচটি অ্যাপ এ বিস্তারিত আলোচনা করব।
তো চলুন শুরু করি।

১. আমাদের লিস্টের নাম্বার ১ এ যে অ্যাপ টি আছে সেটি হচ্ছে ট্রিপল নাইন ইমার্জেন্সি সার্ভিস। অয়েল এটা আমাদের বাংলাদেশ গভর্নমেন্ট এর তৈরি একটি ইমার্জেন্সি কল সেন্টার যেটা হচ্ছে ট্রিপল নাইন ট্রিপল নাইন নম্বরে ডায়াল করে আমরা যে কোন ইমারজেন্সি সার্ভিস নিতে পারি।
বাট এই ট্রিপল নাইন এরই একটি ভার্সন আছে সেটা হচ্ছে অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ যার নাম ও ট্রিপল নাইন ইমার্জেন্সি সার্ভিস।
এই অ্যাপটির মাধ্যমে আপনি চাইলে সেই ইমার্জেন্সি ফ্যাসিলিটি গুলা পেতে পারেন। বাট এখানে যে ফেসিলিটি গুলা এক্সট্রা আছে প্রথমত আপনি এখানে চাইলে লাইভ চ্যাট করতে পারবেন।

এখান থেকে আপনি সরাসরি চ্যাটিং করলেই আপনার কাজ গুলো আরো সহজ হয়ে যায়। যেমন এখানে সবগুলো কলের অপশন রয়েছে আপনি জাস্ট ক্লিক করেই কল করতে পারেন এবং যেকোন ইমার্জেন্সি সার্ভিস এখান থেকে নিতে পারেন।
এছাড়াও এখানে আর নানা ধরনের কল সেন্টারের নাম্বার পেয়ে যাবেন নাম্বার না শুধু ওখানে ক্লিক করলেই কল চলে যাবে।
ফর এক্সাম্পল কৃষি কল সেন্টার, বিটিসিএল স্বাস্থ্য পাতায়ন ঢাকা ওয়াসার এর মতো আরও নানা ধরনের অনেকগুলো কল সেন্টার আছে যেগুলো এখান থেকে অ্যাক্সেস করতে পারেন।

সো এই ট্রিপল নাইন অ্যাপ টি অনেক প্রয়োজনীয় অ্যাপ। এছাড়াও এখানে আরেকটা ইন্টারেস্টিং ফিচার আছে সেটি হচ্ছে আমরা যদি এই অ্যাপে ডানপাশে সোয়াইপ করি তাহলে এখানে বেশ কিছু জনসচেতনামূলক আর্টিকেল আসবে বাংলায় লিখা।

যেগুলোতে লিখা আছে আপনি যদি দৈনন্দিন জীবনে যত ধরনের অ্যাক্সিডেন্ট আছে সেগুলো যদি ফেস করেন তাহলে প্রাথমিকভাবে কি করা উচিত আগুন লাগলে কি করা উচিত ভূমিকম্প হলে কি করা উচিত। আপনার যদি হঠাৎ করে হাত পা কিছু কেটে যায় তাহলেই বা কি করা উচিত তখন আপনি প্রাথমিক চিকিৎসার জন্য কি কি করতে পারেন এ ধরনের নানা জানোসচেতনমুলক আর্টিকেল আছে বাংলায়।
যে গুলো পড়লে আপনারা এই ইমারজেন্সি সিচুয়েশন গুলা আরও ভালোভাবে হ্যান্ডেল করতে পারেন।
এই অ্যাপটি এক নম্বরে রাখার কারণই হচ্ছে এটি তাই আজকেই আপনি আপনার ফোনে ট্রিপল নাইন অ্যাপ টি ইনস্টল করে রাখুন।
তো অ্যাপটি ডাউনলোড করার জন্য এখানে ক্লিক করবেন। তাহলে আপনাকে সরাসরি গুগল প্লে স্টোরে নিয়ে যাওয়া হবে সেখান থেকে সিম্পলি ইন্সটল করে নিবেন। সাইজ মাত্র ৫ মেগাবাইট এর মত যা খুব বেশি নয়।

২. আমাদের লিস্টে সেকেন্ড যে অ্যাপটি আছে সেটি হচ্ছে ইজিয়ার, ওয়েল ইজিয়ার যদিও একটি রাইড শেয়ারিং অ্যাপ এদের মেন ফোকাস হচ্ছে অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস, অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস টাকে অনেক বেশি ফাস্ট করে তুলেছে ট্রিপল নাইন এর সাথে এগ্রিমেন্ট করে।

ট্রিপল নাইন এর সাথে এগ্রিমেন্ট করার পরে তারা অ্যাম্বুলেন্স সার্ভিস গুলো আরো স্মুথলি দিতে পারছে। সেই সাথে এই এম্বুলেন্স সার্ভিস টা আপনারা যে কোন লোকেশন থেকে নিতে পারেন এবং কিছু এক্সট্রা ফিচারস আছে।

ফর এক্সাম্প্লে আপনি যদি ইজ ইয়ারের অ্যাপ ব্যবহার করে কোন এম্বুলেন্স নিয়ে হাসপাতাল কিংবা ডায়াগনস্টিক সেন্টারে জান বেশকিছু ডায়াগনস্টিক সেন্টারে হাসপাতলে তাদের পক্ষ থেকে কুপনের ব্যবস্থা আছে মানে হচ্ছে আপনারা কিছুটা ডিসকাউন্ট পেয়ে যাবেন।

আপনি যেখানেই যান সেখানেই এই অ্যাপের মাধ্যমে অ্যাম্বুলেন্স পাবেন সো এটা একটি লাইভ সেপিং অ্যাপ হতে পারে আপনার জন্য।
সো এই সুন্দর কাজের অ্যাপটি ডাউনলোড করার জন্য এখানে ক্লিক করুন। অ্যাপ এর সাইজ মাত্র ১৭ মেগাবাইটের মত।

৩. আমাদের লিস্টের তিন নাম্বার অ্যাপটি হচ্ছে “ডিজিটাল মানুষ” ওয়ল নামটা খুবই ইন্টারেস্টিং ডিজিটাল মানে হচ্ছে যখন আপনি কোন সমস্যায় পড়বেন আপনার বাসায় ছোটখাটো কোনো কাজের দরকার পড়বে তখন একজন ব্যক্তি কে ভাড়া করতে পারবেন।
এই ডিজিটাল মানুষের মাধ্যমে যেখান থেকে আপনি কাজটা খুব সহজেই সারিয়ে নিতে পারবেন। আপনাকে আর দীর্ঘমেয়াদি কাউকে ডাকতে হচ্ছে না।
যেমন আপনার হঠাৎ করে ফ্যান নষ্ট হয়ে গেল অথবা হঠাৎ করে ইলেকট্রিসিটি কোন একটা সমস্যায় পড়ে গেলেন আপনি এখন আপনি এই ডিজিটাল মানুষ অ্যাপের মাধ্যমে একজন ইলেকট্রিশিয়ান কে আপনার বাসায় ডেকে নিতে পারেন সে এই কাজটা কিন্তু করে দিয়ে যেতে পারে।
এই ডিজিটাল মানুষের নানা ধরনের সার্ভিস এর মধ্যে বেশ কিছু যেমন এসি সার্ভিসিং অটোমেকানিক্স ফটোগ্রাফি গার্ডেনিং ইলেকট্রিশিয়ান গ্রাফিক ডিজাইনার ইত্যাদি এ ধরনের নানা ধরনের কর্মী আপনি চাইলে নিয়োগ করতে পারেন।

এবং এই অ্যাপটি খুবই সিকিউর আপনার বাসায় একজন ব্যক্তিকে ঢোকার জন্য অবশ্যই আপনাকে দেখেশুনে ঢুকাইতে হবে যে কে আপনার বাসায় ঢুকতেছে এবং এই কাজগুলো করতেছে।
সো তাদের যে ব্যক্তিটি আপনার কাছে আসবে ডেলিভারি ম্যান তার কাছে ওপার ইনফর্মেশন থাকবে। তাদের কাছে এই ডেলিভারি ম্যান সম্পর্কে সকল ইনফরমেশন আছে।

এছাড়াও ডিজিটাল মানুষের আরেকটি বড় ফিচার হচ্ছে টিউটর আপনি চাইলে নিজে যদি চান টিউশন করাবেন সে ক্ষেত্রে এই অ্যাপের মাধ্যমে স্টুডেন্ট খুঁজে ফেলতে পারেন।
এবং স্টুডেন্টরা যদি চাই ভালো টিউটর খুঁজে নিবে তাহলে সেটাও এই অ্যাপের মাধ্যমে খুঁজে নিতে পারবে। এবং এই ডিজিটাল মানুষ অ্যাপটি ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ এবং চট্টগ্রাম এ বর্তমানে চালু করেছে।
ইভেন এরা বাংলাদেশের বাইরে ইন্ডিয়াতেও এই অ্যাপটি লঞ্চ করেছে অন্য একটি নামে সেটি হচ্ছে ডিজিটাল ইনসান ওয়েল সেখানেও তারা সাকসেসফুল সো আমি বলব এই অ্যাপটি ও আপনার ফোনের জন্য উসফুল অ্যাপ। অ্যাপটির সাইজ মাত্র ৬ মেগাবাইট এর মত ডাউনলোড করার জন্য এখানে ক্লিক করুন।

৪. আমাদের লিস্টের ৪ নাম্বারে যে অ্যাপটি আছে সেটি হচ্ছে হ্যালো টাস্ক ওয়েল হ্যালো টাস্কের আগে নাম ছিল রোবট টেকো তারা চেঞ্জ করে এখন করেছে হ্যালো টাস্ক।
এই অ্যাপটির কাজ হচ্ছে ইনস্ট্যান্ট মেক সার্ভিস আপনার বাসার বুয়া যদি কখনো পালিয়ে যাই সেক্ষেত্রে আপনি এই অ্যাপটির মাধ্যমে আপনি ইন্সট্যান্টলি বুয়া ডেকে নিতে পারেন।
একদিনের জন্য অথবা এক সপ্তাহের জন্য কিংবা এক মাসের জন্য কোন বুয়াকে আপনার বাড়িতে হায়ার করতে পারেন আপনার বাসার কাজের জন্য। এবং প্রায় সব ধরনের কাজই এরা করে থাকে। এবং মজার বিষয় হচ্ছে আপনি তাদেরকে রেটিং দিতে পারবেন যে বুয়ার কাজ আপনার কেমন পছন্দ হলো সো এই রেটিং এর আশায় বুয়া কিন্তু অনেক ভালো ভাবে কাজ করবে যেটা অন্যান্য বুুয়া করে না।

আপনি ধরুন বাইরে থেকে কোন একটা বুয়া কে আনলেন আপনার বাসায় টাকা দিয়ে সে কিন্তু ভালোভাবে কাজ করবে না হাবিজাবি কাজ করে চলে যাবে। কিন্তু আপনি যদি এখান থেকে বুয়া নেন তাহলে কিন্তু রেটিং দেয়ার অপশন টি পাচ্ছেন যার কারণে বুয়া গুলা ভালোভাবে কাজ করবে।
এবং বুয়া গুলো খুবই স্মার্ট হয় আমার এক্সপিরিয়েন্স আছে এদের সম্পর্কে সো এই অ্যাপটি অনেক বেশি ইন্টারেস্টিং কারণ ঢাকার বুয়া এত বেশি ঝামেলা করে কখন যে পালিয়ে যাই একবার বুয়া চলে গেলে না খেয়ে তো আর থাকা যাবে না সে খেতে ইনস্ট্যান্ট এখান থেকে বুয়া নিতে পারেন।
সো এই অ্যাপটি আপনার ফোনে থাকা প্রয়োজন বলে আমার মনে হয় অ্যাপটির সাইজ মাত্র ৬ মেগাবাইট এর মত ডাউনলোড করার জন্য এখানে ক্লিক করুন।

৫. আমাদের লিস্টে ফাইনাল এবং লাস্ট যে অ্যাপটি আছে সেটি হচ্ছে “চাল ডাল” ওয়েল চাল ডাল সম্পর্কে আপনার হয়তো অনেকের শুনেছেন। এটি একটি অনলাইন ভার্সিটি শপ।
যেটার মাধ্যমে আপনারা চাইলে পেঁয়াজ-রসুন চাউল মরিচ ফল সবজি ইত্যাদি কিনে আপনার বাসায় নিয়ে আসতে পারেন।
এবং মাত্র 2 ঘণ্টার মধ্যে ডেলিভারি দিয়ে যায় ফর এক্সাম্প্লে আপনি কখনো বাজার করতে ভুলে গেলেন কিংবা কোন কাজে খুব বিজি হয়ে গেলেন।
সে ক্ষেত্রে সে ক্ষেত্রে আপনি চাইলে আপনার নিত্যদিনের যে বাজার গুলো আছে সেগুলো এই অ্যাপটির মাধ্যমে অর্ডার করে ফেলতে পারেন এবং একজন ডেলিভারি ম্যান আপনার বাসায় এসে বাজারগুলো দিয়ে যাবে।
মজার বিষয় হচ্ছে আমার একদিন খুব ইচ্ছা হলো তরমুজ খাওয়ার বাট তরমুজ টা ছিল বিশাল বড় বাজারে বাট সেটা নিয়ে আমার বাসার ছয় তলায় লিফট নেই ওঠাটা খুবই মুশকিল।
যে কারণে আমি প্ল্যান করলাম যে চাল ডাল এ তো তরমুজ 🍈 আছে বাসায় এসে অর্ডার করলাম তরমুজ🍈 আমার বাসায় দিয়ে গেল যার কারণে আমাকে আর পরিশ্রম করতে হলো না।
এবং প্রাইস টাও ছিল একই রেটতো আমি রিকমেন্ড করব চাল ডাল অ্যাপটি আপনার ফোনে রাখার জন্য এটিও একটি ইউজফুল অ্যাপ।
সো অ্যাপটিকে ডাউনলোড করার জন্য এখানে ক্লিক করতে হবে সাইজ মাত্র ১৯ মেগাবাইটের মত।
আমার পোস্টটি শেষ করবো আর একটি অ্যাপ এর কথা বলে আমাদের দেশের আরও একটি চমৎকার অ্যাপ রয়েছে সেটি হচ্ছে “পাঠাও” পাঠাও হচ্ছে একটি রাইড শেয়ারিং অ্যাপ পাঠাও অ্যাপ সম্পর্কে সবাই জানেন পাঠাও অ্যাপ প্রায় সবার মোবাইলেই আছে সেজন্য নতুন করে পাঠাও নিয়ে বলার কিছু নাই।
এই অ্যাপটি আবার বলছি কারণ এই পোস্টটিতে বাংলাদেশের সবথেকে মস্ট উসফুল অ্যাপ এর কথা বলছি তার মধ্যেও পাঠাও একটি। যেটির মাধ্যমে বাংলাদেশের এক প্রান্ত থেকে আরেক প্রান্তে বাইক কিংবা গাড়িতে যেতে পারবেন।
সো আমি মনে করি আমার দেওয়া প্রত্যেক টা অ্যাপ আপনার ফোনে থাকা অত্যন্ত জরুরী | আর আপনি যদি এই অ্যাপ গুলো এর আগে থেকেই ইউজ করে থাকেন তাহলে আপনার অভিজ্ঞতা কেমন সেটা জানাতে পারেন কমেন্ট বক্সে।
আর পোস্টটি শেয়ার করে আপনার বন্ধুদের কাছে ছড়িয়ে দিন। সো আজকের পোস্টটি এ পর্যন্তই দেখা হচ্ছে নতুন কোন পোস্টে ততক্ষণ পর্যন্ত ভালো থাকবেন ধন্যবাদ।



Source link

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here