আসসালামু আলাইকুম।
সবাই কেমন আছেন? আশা করি ভাল আছেন। এবং আগামীতে ভাল থাকবেন এই কামনা রইল।

আমরা লম্বা হওয়ার জন্য কত কিই না করে থাকি। নানা রকম ব্যায়ামসহ রিং এ ঝুলে লম্বা হওয়ার চেষ্টা করি। কিন্তু কয়েকটি খাবার রয়েছে যেগুলো আপনাকে সহজেই আপনাকে লম্বা হতে সাহায্য করবে।
যে কেও যে কেনো সময় লম্বা হতে পারে না। তারজন্য বয়সের একটা সময়সীমা রয়েছে। একটা নির্দিষ্ট বয়স পর্যন্ত মানবদেহের এই বৃদ্ধি ঘটে থাকে। তখন বাড়তে থাকে উচ্চতা। দেহ কতখানি লম্বা হবে মূলত সেটি অনেকটাই জেনেটিক। তবে কিছু কিছু ক্ষেত্রে এটি নির্ভর করে খাওয়া-দাওয়ার ওপর। পর্যাপ্ত পুষ্টির অভাবে অনেক সময় শরীর বৃদ্ধি বা লম্বা হতে পারে না। আবার কিছু খাবার রয়েছে যেগুলো দেহ বৃদ্ধির প্রক্রিয়াকে ত্বরান্বিতও করে থাকে। জেনে নেওয়া যাক এমন কিছু অসাধারণ খাবারের কথা।

আপেল :
আপেলে রয়েছে ফাইবার ও পানি। এই ফাইবার এবং পানি বাচ্চাদের লম্বা হতে সাহায্য করে থাকে। আর তাই প্রতিদিন খাবারের আধা ঘণ্টা আগে বাচ্চাদের একটি করে আপেল খেতে দিন। এতে আপনার বাচ্চাকে 2ফাইবারটি লম্বা হতে সাহায্য করবে।
ডিম :
ডিম একটি স্বাস্থ্যকর খাবার এটি আমাদের সকলের জানা। এই ডিমে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে প্রোটিন এবং ভিটামিন। যে কারণে শরীরের বৃদ্ধি হয়ে থাকে এবং লম্বা হতে সাহায্য করে থাকে।
ডার্ক চকলেট :
আমরা বাচ্চাদের চকলেট খেতে দিতে চাইনা। আমরা মনে করি চকলেট খেলে নানা রকম ক্ষতি হতে পারে। কিন্তু এই ডার্ক চকলেট বাচ্চাদের লম্বা হতে সহায়তা করে। এতে থাকা ক্যালরি কোষ বৃদ্ধি করে, যে কারণে বাচ্চারা লম্বা হয়ে ওঠে।
বাদাম :
বাদাম বা কাজুবাদাম আমরা সখ করে বা কোথাও বেড়াতে গেলে সময় কাটানোর জন্য খেয়ে থাকি। কিন্তু এই বাদাম স্বাস্থ্যের জন্য খুবই উপযোগী একটি খাবার। এই বাদামে থাকা বিভিন্ন প্রোটিন ও ভিটামিন দেহের বিভিন্ন পুষ্টি যোগায়। তাছাড়া এটি লম্বা হতেও সহায়তা করে থাকে।
স্যুপ :
স্যুপ আমরা শুধুমাত্র অসুস্থ্য ব্যক্তিকে খাওয়ায়ে থাকি। কিন্তু এই স্যুপ স্বাস্থ্য উপযোগী একটি খাবার। এতে প্রচুর ক্যালরি রয়েছে যা ক্ষুধা বাড়িয়ে দেয়। ফলে অতিরিক্ত খাবার গ্রহণের ফলে কোষ বৃদ্ধি করে লম্বা করে তোলে। তাই নিয়মিতভাবে আপনার বাড়ন্ত বাচ্চাদের এই স্যুপ খাওয়ান।
ছোলা, মসূর, মটরশুটিছোলা, মসূর, মটরশুটিতে প্রচুর পরিমাণে প্রোটিন, ফাইবার, অ্যান্টিঅক্সিডেন্টস, ভিটামিন বি ও আয়রণ রয়েছে। যা শরীরের কোষ বুদ্ধিতে সহায়তা করে থাকে। এটি লম্বা হতেও সাহায্য করে থাকে। তাই ছোলা, মসূর, মটরশুটি বেশি করে খাদ্য তালিকায় রাখুন। প্রতিদিন এই খাবারগুলো নিয়মকরে খাওয়ার চেষ্টা করুন।





Source link

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here