প্রতিবারই মূল রিলিজগুলোর পর কার্নেল ওপেন-সোর্স করে মার্কিন ওয়েব জায়ান্ট প্রতিষ্ঠানটি। ম্যাকওএস এবং আইওএস-এ একই ভিত্তি ব্যবহার করায় আইওএস ডিভাইসেও একই কার্নেল চলে।

এ বছরও গিটহাব-এ সবশেষ কার্নেল শেয়ার করেছে অ্যাপল। এবার এটির আর্ম সংস্করণও উন্মুক্ত করা হয়েছে বলে প্রতিবেদনে জানিয়েছে প্রযুক্তিবিষয়ক সাইট টেকক্রাঞ্চ-এর প্রতিবেদনে।

২০০১ সালে ম্যাকওএস-এর প্রথম সংস্করণ ‘ম্যাক ওএস X’ উন্মোচন করা হয়। সে সময় এটি তৈরি করেছিল প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান নেক্সট। ১৯৮৫ সালে স্টিভ জবস এটি প্রতিষ্ঠা করেন। পরবর্তীতে ১৯৯৭ সালে এটি অ্যাপলের কাছে বিক্রি করা হয়। ২০০১ সালে প্রথম ম্যাকওস আনা হয় নেক্সট-এর তৈরি ‘নেক্সটস্টেপ’ অপারেটিং সিস্টেমের ওপর ভিত্তি করে।

নেক্সটস্টেপও তৈরি করা হয়েছে বিএসডি নামের ওপেন-সোর্স প্রকল্প দিয়ে। তাই বর্তমানে যে ম্যাক অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহার করা হচ্ছে তার অনেক কিছুই ওপেন-সোর্স প্রযুক্তির। এ কারণেই প্রতিবছর ম্যাকওএস-এর ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র বিষয়গুলো উন্মুক্ত করে অ্যাপল।

অন্যদিকে ২০০৭ সালে উন্মোচন করা হয় আইওএস। সে সময় স্টিভ জবস বলেছিলেন আইফোনের এই অপারেটিং সিস্টেমটি ম্যাকওএস-এর শাখা।

জবস বলেন, “আজ আমরা আপনাদেরকে একটি যুগান্তকারী সফটওয়্যার দেখাতে যাচ্ছি। এমন সফটওয়্যার যা অন্যান্য ফোনের সফটওয়্যারের চেয়ে অন্তত পাঁচ বছর এগিয়ে। আমরা একটি মজবুত ভিত্তি থেকে শুরু করেছি। ওএস X- এ চলবে আইফোন।”

আইওএস ও ম্যাকওএস উভয়ই চলে ডারউইন নামের ইউনিক্স-ভিত্তিক কোর থেকে। আর অ্যাপল টিভিও চলে আইওএস-এর ওপর ভিত্তি করে, যার মূল ভিত্তি ডারউইন।

এখন কার্নেল-এর আর্ম সংস্করণ খুব বেশি কিছু মনে নাও হতে পারে। ধারণা করা হচ্ছে এর মাধ্যমে ওপেন-সোর্স সমাজের প্রতিক্রিয়া জানতে চাচ্ছে অ্যাপল।



Source link

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here